কৃষি বিষয়ক বিবিধ তথ্যমালা

  • কৃষি মৌসুম কয়টি: কৃষি মৌসুম তিনটি: রবি মৌসুম: ১৬ অক্টোবর থেকে ১৫ মার্চ(কার্তিক থেকে ফাল্গুন); খরিপ-১ মৌসুম: ১৪ মার্চ থেকে ১৫ জুলাই( চৈত্র-আষাঢ়); খরিপ-২: ১৬ জুলাই থেকে ১৫ অক্টোবর (শ্রাবণ-আশ্বিন)
  • …………………………………………………………………………………………...
  • নিট ফসলী জমি(Net Cropped Area ): যে জমিতে সারা বছর ফসল হলেও গণনার হিসেবে শুধুমাত্র একবা্রই বিবেচনা করা হয়( Area is the area sown with crops but is counted only once)। নিট ফসলী জমি সব সময় মোট ফসলী জমি অপেক্ষা কম হবে।
  • মোট ফসলী জমি: বছরে এক বা একাধিক চাষযোগ্য জমির সম্মিলিত যোগফলই হলো মোট ফসলী জমি (Gross Cropped Area (GCA) is the total area sown once as well as more than once in a particular year. When the crop is sown on a piece of land for twice, the area is counted twice in GCA)।অর্থাৎ মোট ফসলী জমি: এক ফসলী× ১ + দুই ফসলী জমি × ২+তিন ফসলী জমি × ৩= মোট ফসলী জমি।
  • শস্যের নিবিড়তা(Cropping intensity): একটা জমিতে বছরে কতবার ফসল চাষ হচ্ছে সেটাই হলো ঐ এলাকার শস্য নিবিড়তা(Cropping Intensity Index refers to the changes in the cropping intensity of crop compared to a given base year. Cropping intensity is the number of times a crop is planted per year in a given agricultural area. It is the ratio of effective crop area harvested to the physical area.)।কোন এলাকার শস্য নিবিড়তা ৩০০% অর্থ সেখানকার সকল জমিতে বছরে তিনবার ফসল চাষ চাষ হয়ে থাকে।মোট ফসলী জমিকে, নিট ফসলী দিয়ে ভাগ করে সেটার শতকরা হারই হলো শস্য নিবিড়তা।যেমন: ভারতের মোট ফসলী জমি ১৯১ মি. হে: এবং নিট ফসলী জমি ১৪১ মি. হেক্টর; তাহলে ভারতে শস্য নিবিড়তা:১৯৫÷১৪১×১০০=১৩৮%
  • ……………………………………………………………………………………………….
  • আউশ আমন বোরো: ধান এখন সারা বছরই হয়।কিছু আছে স্থানীয় জাত, কিছু হচ্ছে উফশী(উচ্চ ফলনশীল) জাত। ধান চাষের মৌসুমকে তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে, যেমন:আউশ-আমন-বোরো।
  • আউশ:কৃষি জলবায়ু অঞ্চল ভেদে মূলত বৃষ্টির সঙ্গে সাযুজ্য রেখে আউশের বীজ বোনা শুরু হয় ফাল্গুন মাস (১৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে। চলে আষাঢ় মাস পর্যন্ত (১৫ জুলাই)। আর বোনার সময় ভেদে জ্যৈষ্ঠ (১৫ মে) মাসে শুরু হয়ে কাটা চলে আশ্বিন মাস (১৫ অক্টোবর) পর্যন্ত।
  • আমন: অন্য দিকে আমনের বীজ বীজতলায় পড়তে শুরু করে আষাঢ় মাসের দ্বিতীয় পক্ষ থেকে (১৫ জুলাই)। রোয়া শুরু হয় শ্রাবণ মাসের দ্বিতীয় পক্ষ থেকে (১৫ আগস্ট) আশ্বিন মাঝের মাঝামাঝি পর্যন্ত (১৫ সেপ্টেম্বর)। নিচু জিম যেখানে বর্ষার শুরুতেই এক থেকে দেড় ফুট জল দাঁড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল সেই সমস্ত অঞ্চলে অবশ্য‌ আলোক সংবেদনশীল দীর্ঘমেয়াদি আমন ধানের বীজ মূল জমিতে সরাসরি বোনা হয় চৈত্র মাসের মাঝামাঝি (১৫ এপ্রিল) থেকে। আমন কাটা শুরু হয় কার্তিক মাসের মাঝামাঝি (অক্টোবর মাসের তৃতীয় সপ্তাহ), চলে পৌষ মাস পর্যন্ত (১৫ জানুয়ারি)। সর্বভারতীয় স্তরে অবশ্য‌ আউশ ও আমনকে এক সঙ্গে মিশিয়ে খরিফ ধান বলা হয়।
  • বোরো:বোরো ধানের বীজ বীজতলায় পড়তে শুরু করে অগ্রহায়ণ মাস (১৫ নভেম্বর) থেকে। রোয়া চলে মাঘ মাসের প্রথম পক্ষ পর্যন্ত (৩১ জানুয়ারি)। কাটা শুরু হয় চৈত্র মাসের শেষাশেষি (২১ এপ্রিল থেকে)। শেষ হতে হতে জ্যৈষ্ঠ মাসের প্রথম পক্ষ (১৫ মে)। লেখকঃ Dr. Subhendu Deb Chatterjee
  • …………………………………………………………………………………………………
  • ইরি বোরো কথাটি সঠিক নয়: এ যাবত বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইন্সটিটউট(Bangladesh Rice Research Institute: BRRI) থেকে ৮৬টি ধান অবমুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৮০ টি ইনব্রিডধানের জাত আর ৬টি হাইব্রিড জাত। ১৩ নম্বরে কোন ধান নেই কারণUnlucky 13; ১ নম্বর থেকে ২৬ নম্বর পর্যন্ত ধানের আগে বিআর(BR: Bangladesh Rice) বিআর২৬ এবং ব্রি(BRRI)ধান২৭। কিন্তু ইরি(IRRI: International Rice Research Institute) ধান কথাটি নয়। দেশ স্বাধীনের আগে ফিলিপাইন থেকে আগত কয়েকটি উফশী ধানকে ইরি(IRRI)বলা হতো। দেশ স্বাধীনের পরেও কিছুদিন IR8(International Rice)নামে ধানের একটা জাত ছিল, যার চাল মোটা ,নোনতা, খেতে অনেকটাই বিস্বাদ। সে ধানের অস্তিত্ব অনেক আগেই শেষ হয়েছে। তাই কোনভাবেই এখন ইরি বোরো বলা যাবে না।
  • —————————————————————————————
  • নিচের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের বিসিএস কৃষি ক্যাডার অফিসারদের গ্রেডেশান নম্বরের লিঙ্কটা নিচে দেয়া হলো।
  • ID Number BCS Cadre Officers
  • …………………………………………………………………………………………
  • ২০১৭ সালের কৃষি ডায়েরীর জরুরী তথ্যমালা কৃষি তথ্য সার্ভিস কর্তৃক প্রচারিত ও প্রকাশিত। নিচের লিঙ্কে দেখুন।
  • Agriculture Diary
  • ————————————————————————————–
  • ২০১৭ সালের কৃষি ডায়েরীতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ ছাড়াও জরুরী যেসব টেলিফোন ও মোবাইল নম্বর রয়েছে, সেগুলো জানতে নিচের লিঙ্কে যান।
  • Telephone Numbers
  • —————————————————————————————
  • ২০১৮ সালের কৃষি ডায়েরীর জরুরী তথ্যমালা কৃষি তথ্য সার্ভিস কর্তৃক প্রচারিত ও প্রকাশিত। নিচের লিঙ্কে দেখুন।
  • Telephone Diary-2018
  • —————————————————————————————
  • ২০১৮ সালের কৃষি ডায়েরীতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ ছাড়াও জরুরী যেসব টেলিফোন ও মোবাইল নম্বর রয়েছে, সেগুলো জানতে নিচের লিঙ্কে যান।
  • Telephone Diary-2018
  • ————————————————————————————-