আধুনিক কৃষির খবরাখবর

  • আধুনিক কৃষির স্বরূপে প্রতিনিয়ত পরিবর্তন আসছে। সেই পরিবর্তিত পরিস্থিতির আলোকে নানাবিধ কৃষি বিষয়ক আধুনিক খবরাখবর এখানে সংযোগ করা হলো।প্রথমে এখানে সন্নিবেশিত সকল প্রতিবেদনের সংক্ষিপ্ত রূপ দেখতে পাবেন। সংক্ষিপ্ত রূপটি আপনার পছন্দ হলে সেখান থেকে বিস্তারিত জানতে চাইলে নির্ধারিত লিঙ্কে ক্লিক করে ওয়ার্ড ফাইল বা পাওয়ার পয়েন্ট ফাইল বা ভিডিও পাবেন, যা ডাউনলোড করে আপনি ইচ্ছেমত এডিট করে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • ————————————————————————————
  •  অত্রসাথ সংযোজিত প্রতিবেদনের সংক্ষিপ্তসার:
  • (১) কৃষিতে বর্তমান সরকারের সফলতা(ফেব্রুয়ারী,২০০১৯ হতে জুন ২০১৬):
  • (২)“কৃষক, কৃষিবিদ ও এঁদের সহযোগিদের সম্মিলিত প্রয়াশেই আজকের স্বয়ম্ভর বাংলাদেশ”…।
  • (৩) ছাদে বাগান ও টব বা পট ব্যবস্থাপনা:
  • (৪) কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও এ্যাপস্ এর খবরাখবর:
  • (৫) জিএম ফসল ও বিটি বেগুনের কথকতা:
  • (৬) হাইড্রপোনিক বা পানিতে ফুল সবজির চাষ:
  • (৭) নারিকেল মাইট বা “মোবাইল” সমস্যার লাগসই সমাধান:
  • (৮) মাশরুম চাষের সাত সতেরো:
  • (৯) ডায়াবেটিক ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রক গাছ:
  • (১০) দক্ষিণাঞ্চলের বিখ্যাত চুইঝাল: 
  • (১১) ভাসমান সবজি চাষ পরিবেশ বান্ধব কৃষির আশীর্বাদ:
  • (১২)”ইফপ্রির গবেষণার তথ্য , কৃষিতে প্রবৃদ্ধির গতি কমছে” শীর্ষক প্রতিবেদন বিষয়ে  জরুরি প্রতিবাদ :
  • (১৩) বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০১৭ এর মূল প্রতিবেদন:
  • (১৪) মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় জৈবসারের ব্যবহার:
  • (১৫) ফল ফসল ও কৃষিতে রাসায়নিক সন্ত্রাস এবং আমাদের করণীয়:
  • =================================================
  • উপরোক্ত প্রতিবেদনের সংক্ষিপ্তসার বা পূর্ণাঙ্গ রূপ দেখুন:
  • (১) কৃষিতে বর্তমান সরকারের সফলতা(ফেব্রুয়ারী,২০০১৯ হতে জুন ২০১৬):
  • # খাদ্যে সযংসম্পূর্ণতা  অর্জন: বার্ষিক খাদ্যশস্য  (চাল,গম,ভূট্টা) উৎপাদন: ৩,৮৪,১৯,০০০ মে.টন  # সবজি উৎপাদনে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থান (২০১৫-১৫ তে সব উৎপাদন ১,৫২,৬৪ মে.টন); # খাটো জাতের নারিকেলের প্রবর্তন; # পাটের জেনম সিকেন্স আবিষ্কার ও ৫০০ ক্ষতিকর ছত্রাকের জীবন রহস্য উন্মোচন; # প্রতিকূলতা সহিষ্ণু ফসল জাত উদ্ভাবন: ১৫৬টি  # বোরো বীজ সরবারহ: মোটা চাহিদার ৮৫.৯৮% সেচ সম্প্রসারণ: ৯,৮১,১৯৮ হেক্টর # সার, জ্বালানি ও সেচে ভর্তৃকি:৫৬,৭৬৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকা; # খামার যান্ত্রিকীকরণে ভর্তুকি: ১৬৩ কোটি ৪১ লাখ টাকা; # কৃষি উপকরণ সহায়তা কার্ড:২ কোটি ৮ লাখ ১৩ হাজার ৪৭৭ জন; # ১০ টাকায় কৃষকের ব্যাংক হিসাব খোলা:১ কোটি ১ লাখ ১৯ হাজার ৫৪৮টি; # চারদফা নন ইউরিয়া সারের মূল্য হ্রাস;# নিয়োগ/কর্মসংস্থান:৭,৭১৬ জন # ক্রপিং জোন ম্যাপ প্রনয়ন:১৭টি # ই কৃষি প্রবর্তন
  • তথ্য সূত্র: কৃষি তথ্য সার্ভিস, খামারবাড়ি, ঢাকা।
  • ———————————————————————————-
  • (২)“কৃষক, কৃষিবিদ ও এঁদের সহযোগিদের সম্মিলিত প্রয়াশেই আজকের স্বয়ম্ভর বাংলাদেশ”…।
  • এ বছর জানুয়ারী মাসের প্রথম দিনে (০১.০১.২০১৭ খ্রি.) এ ধরনের একটা প্রতিবেদন লিখেছিলাম ফেসবুকে। এখানে কৃষির ঈর্ষণীয় চালচিত্রের বর্ণনা দেয়া আছে। লেখাটির ওয়ার্ড ফাইলের লেখা পেতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
  • Today’s self-reliant Bangladesh সয়ম্ভর বাংলাদেশ
  • —————————————————————————————-
  • (৩) ছাদে বাগান ও টব বা পট ব্যবস্থাপনা: ছাদে বাগান এখন সময়ের দাবী। ছাদে এখন আপনি সব ধরনের ফুল ফল শাক সবজির চাষ করতে পারবেন।ভালমত জেনে শুনে বুঝে ছাদে বাগান করলে আপনার বাগানের কোন ক্ষতি হবে। তাই এ ব্যাপারে জানতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
  • Roof Gardening ছাদে কৃষি ও টব বা পট ব্যবস্থাপনা
  • এ ব্যাপারে আরো চমৎকার তথ্যের জন্যে ৫.২৮ মিনিটের একটা ভিডিও দেখার জন্যে নিচের লিঙ্কে যান।
  • https://youtu.be/tgrvXoC7SYk
  • —————————————————————————————–
  • (৪) কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও এ্যাপস্ এর খবরাখবর: কৃষি সম্পর্কে জানার জন্যে এখন অনেক ওয়েবসাইট ওএ্যাপস্ রয়েছে, এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
  • কৃষি বিষয়ক ওয়েবসাইট ও আ্যাপস্
  • ————————————————————————————
  • (৫) জিএম ফসল ও বিটি বেগুনের কথকতা: জিএম ফুড এবং বিটি বেগুন নিয়ে বিতর্ক থেমে নাই।এর মধ্যে বাংলাদেশে কৃষি গবেষণা ইন্সটিটউট উদ্ভাবন করেছে বিটি বেগুন। এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কে যান, মজাদার ওয়ার্ড ফাইলে সব তথ্য পাবেন।
  • জিএম ফসল ও বিটি বেগুন
  • —————————————————————————————
  • (৬) হাইড্রপোনিক বা পানিতে ফুল সবজির চাষ: এই প্রযুক্তি বিশ্বের অনান্য দেশে অনেক আগে চালু হলেও, হালে বাংলাদেশে এই পদ্ধতিতে সবজি ও ফুল চাষ হচ্ছে। এ ব্যাপারে গবেষণা করে ভাল ফলাফলের কথা জানান দিচ্ছেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটউটের বিজ্ঞানীরা। এ ব্যাপারে ওয়ার্ড ফাইল পেতে ক্লিক করুন, নিচের লিঙ্কে।
  • হাইড্রপনিক সবজি চাষ
  • —————————————————————————————–
  • (৭) নারিকেল মাইট বা “মোবাইল” সমস্যার লাগসই সমাধান: নারিকেল ও নারিকেল গাছে বেশ কয়েক বছর যাবত যে সমস্ত রোগ বালাই দেখা যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম হলো নারিকেলের খোসা বা খোলের উপর ফাটা ফাটা দাগ পড়া। আক্রান্ত নারিকেল আকারে বৃদ্ধি হতে পারে না, ফাটা স্থান দিয়ে লালচে আঠাল পদার্থ বের হয়। ঐ সকল আঠাল পদার্থ  শুকিয়ে শক্ত হয়ে ফাটা-ফাটা ক্ষত চিহ্ন সৃষ্টি করে যা দেখলে অনেকটা আঁচড় কাটা দাগ বলে মনে হয়।  সাধারণ মানুষের ধারণা “মোবাইল” ফোনের টাওয়ারের জন্যেই নারিকেলে এ ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এটি একটি ভ্রান্ত ধারণা । এ সম্পর্কে প্রকৃত তথ্যে জানা যায় নারিকেল মাইটের সফল গবেষক ও বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত বিজ্ঞানী ড. নাজিরের কাছ থেকে। বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
  • নারকেলের মাইট দমন
  • ————————————————————————————
  • (৮) মাশরুম চাষের সাত সতেরো: আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ মাশরুমকে ব্যাঙের ছাতা মনে করলেও মাশরুম  হলো এক ধরণের ভক্ষণযোগ্য  মৃতজীবী ছত্রাকের ফলন্ত অংগ।  ছত্রাকবিদরা বিশ্বে প্রায় ৩ লক্ষ প্রজাতির ছত্রাক চিহ্নিত করতে পেরেছেন। এই অসংখ্য ছত্রাকের মধ্য থেকে দীর্ঘ যাচাই ও বাছাই করে যে সমস্ত ছত্রাক সম্পূর্ণ খাওয়ার উপযোগী, পুষ্টিকর ও সুস্বাদু সেগুলোকেই তাঁরা মাশরুম হিসেবে গণ্য করেছেন। সুতরাং ব্যাঙের ছাতা এবং মাশরুম এক জিনিস নয়। ব্যাঙের ছাতা প্রাকৃতিক ভাবে যত্রতত্র গজিয়ে ওঠা বিষাক্ত ছত্রাকের ফলন্ত অংগ কিন্তু মাশরুম হলো বিশ্বের সর্বাধুনিক পদ্ধতি (টিস্যু কালচার)-এর মাধ্যমে উৎপন্ন বীজ দ্বারা সম্পূর্ণ পরিচ্ছন্ন পরিবেশে বিজ্ঞান সম্মত উপায়ে চাষ করা সুস্বাদু, পুষ্টিকর এবং ঔষধীগুণ সম্পন্ন সবজি, যা সম্পূর্ণ হালাল। এ ব্যাপারে নিচের লিঙ্ক থেকে বিস্তারিত জানুন:
  • মাশরুম চাষের সাত সতেরো
  • ———————————————————————————–
  • (৯) ডায়াবেটিক ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রক গাছ: বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে বিপুল জনপ্রিয় ডায়াবেটিস ও ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রনে Gynura procumbens (গায়নুরা প্রোকাম্বেনস) ঔষধ গাছ ।এটা এক ধরনের হার্বাল গাছ এটা বাংলাদেশে পাওয়া যাচ্ছে ।খালি পেটে ২টি পাতা খেলে নাকি ডায়াবেটিস ও ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রনে থাকে।আজকাল এটাকে Diabetes, HTN and elevated levels of cholesterol and triglycerides. এর জন্য ওয়ান্ডার হার্ব বলে মনে করা হয় । এ ব্যাপারে নিচের লিঙ্ক থেকে বিস্তারিত জানুন:
  • ডায়াবেটিক গাছ
  • ———————————————————————————–
  • (১০) দক্ষিণাঞ্চলের বিখ্যাত চুইঝাল:  দেশের দক্ষিণাঞ্চলে চুইঝাল একটি পরিচিত ও জনপ্রিয় গুরুত্বপূর্ণ মশলা ফসল। বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা, যশোর, নড়াইল প্রভৃতি জেলায় চুইঝালের চাষ করা হয়। চুইঝালের চাষ প্রধানত: বসতবাড়িতেই সীমাবদ্ধ। চুইঝালকে সবাই চেনে ‘চই’ বা ‘চুই’ নামে।এর জন্যে তেমন কোন জমিরও দরকার নেই। খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগরের আব্বাসের হোটেলের রান্না করা চুউঝালের খাসির মাংস বিশাল জনপ্রিয়।এ সন্মন্ধে নিচের লিঙ্ক থেকে বিস্তারিত জানুন:
  • দক্ষিণাঞ্চলের বিখ্যাত চুইঝাল
  • ————————————————————————————–
  • (১১) ভাসমান সবজি চাষ পরিবেশ বান্ধব কৃষির আশীর্বাদ: তিনভাগ জল আর ১ ভাগ স্থলভিত্তিক বাংলার সিংহভাগ বাস্তবতা দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চল। বৃহত্তর বরিশালের কথাই বলি। এখানে পানি আর পানি অথৈই পানি। বছরের ৬ থেকে ৭ মাস পানি বন্দি থাকে সিংহভাগ এলাকা। নিজেদের বাঁচার তাগিদে তারা উদ্ভাবন করেছে একটি বিশেষ প্রযুক্তিগত পদ্ধতি। ভাসমান এ পদ্ধতিকে তারা স্থানীয় ভাষায় বলে ধাপ পদ্ধতি বা বেড় পদ্ধতি। এ বিষয়ে নিচের লিঙ্ক থেকে বিস্তারিত জানুন:
  • ভাসমান সবজি চাষ
  • ————————————————————————————
  • (১২)”ইফপ্রির গবেষণার তথ্য , কৃষিতে প্রবৃদ্ধির গতি কমছে” শীর্ষক প্রতিবেদন বিষয়ে  জরুরি প্রতিবাদ : গতকাল ৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবারের দৈনিক প্রথম আলোয় প্রকাশিত (শেষ পৃষ্ঠায়) “ইফপ্রির গবেষণার তথ্য , কৃষিতে প্রবৃদ্ধির গতি কমছে” শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। ঐ গবেষণার তথ্যানুসারে,”১২ শতাংশ কৃষক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সেবা পেয়ে থাকে” । এই ব্যাপারে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক,মঞ্জুরুল হান্নান স্যার সহ অনেককেই এটার প্রতিবাদ করেছেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এটা নিয়ে রীতিমত হৈ চৈ পড়ে গেছে। তাই এ ব্যাপারে কৃষিবিদ অশোক শর্মার জরুরি প্রতিবাদটি পড়তে নিচের জরুরী প্রতিবাদ লেখার উপরে ক্লিক করুন:
  • জরুরী প্রতিবাদ 
  • ———————————————————————————
  • (১৩) বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০১৭ এর মূল প্রতিবেদন: এ বিষয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন পেতে নিচের লিঙ্কে ভিজিট করুন, ওয়ার্ড ফরমেটের ফাইলটি পেয়ে যাবেন।
  • বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০১৭ World Food day 2017
  • ——————————————————————————–
  • (১৪) মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় জৈবসারের ব্যবহার: খড়কুটা আবর্জনা পঁচা সার, খৈল, গোবর সার, কেঁচো কম্পোস্ট বা ভর্মি কম্পোস্ট, ধৈঞ্চা, শ্যাওলা, এ্যাজোলা, জীবাণু সার সবই হলো জৈব সার। জৈব সার মাটির প্রাণ।মাটিতে জৈবসার না দিলে অনান্য রাসায়নিক সার জমিতে ভাল কাজ করে না। তাই জৈব সার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কের ওয়ার্ড ফাইলটি পড়ুন। অনেক কিছু জানতে পারবেন।
  • মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষায় জৈব সারের ব্যবহার
  • ———————————————————————————-
  • (১৫) ফল ফসল ও কৃষিতে রাসায়নিক সন্ত্রাস এবং আমাদের করণীয়: .………ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির জন্যে যথেচ্ছভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে রাসায়নিক সার। দ্রুত এবং নিমিষে আগাছা দমনের জন্যে কৃষক ব্যবহার করছেন সহজলভ্য আগাছনাশক। এসব কেমিক্যালও মাটির স্বাস্থ্য সুরক্ষার ও জনস্বাস্থ্যের জন্যে হিতকর নয়, ক্ষতিকর!স্বাস্থ্য এবং কৃষি বিশেষজ্ঞদের যৌথ এবং অভিন্ন মতামত: কৃষি ও চিকিৎসা ব্যবস্থায় অভাবনীয় উন্নতি ও উৎকর্ষ সাধিত হয়েছে সন্দেহ নেই, কিন্তু বহুবিদ রাসায়নিক সন্ত্রাসের মধ্যে পড়ে মানব শরীরে রোগের প্রকোপ বেড়েছে অনেক অনেক বেশি । এ ব্যাপারে কার্যকর ব্যবস্থা এক্ষুনি নিতে হবে নচেৎ ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্যে সেটা এক ভয়াবহ অশনি সংকেতের বার্তাবাহক বটে!কৃষি বিশেষজ্ঞদের পরামর্শানুসারে, যেভাবে পরিমিত ও পরিবেশ বান্ধব উপায়ে কীটনাশক ও রাসায়নিক সার ব্যবহার করা দরকার তা আমাদের বেশিরভাগ কৃষকই যথাযথভাবে জানেন না এবং যারা জানেন তারাও সেটা ঠিকমত মানেন না। ……..এ ব্যাপারে  বিস্তারিত জানুন নিচের ফাইল থেকে………….
  • ফলে ও সবজির রাসায়নিক সন্ত্রাস ০৪ মে ২০১৭
  • —————————————————————————————-